চকরিয়া পৌর এলাকায় অবৈধ কার্যকলাপের জন্য দাবীকৃত চাঁদা না দেয়ায় ভাবি ও ভাইকে মারধর করে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে

received_633925960491128

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়া পৌর এলাকায় অবৈধ কার্যকলাপের জন্য দেবরের দাবীকৃত চাঁদা না দেয়ায় ভাবি ও ভাইকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে। এমনকি ভাবিকে লোহার রড দিয়ে প্রাণে হত্যার চেষ্টায় আঘাত করে ডান হাত ভেঙ্গে দিয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালের মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। চকরিয়া পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ডের চিরিঙ্গা মাস্টারপাড়া বাশঘাট রোডে গত ১৩ মে বিকাল ৩টার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা।
এঘটনায় আহতদের পক্ষে মৃত বুজুরুক চৌধুুরীর পুত্র সাহাব উদ্দিন বাদী হয়ে থানায় লিখিত এজাহার দায়ের করেন। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; মৃত বুজুরুক চৌধুুরীর পুত্র জালাল উদ্দিন ও সাদ্দাম হোসেন, জালাল উদ্দিনের ছেলে মোঃ জুয়েলকে।

অভিযোগে জানাগেছে, অভিযুক্ত দেবর সাদ্দাম হোসেন তার ভাবি পারভিন আক্তারের কাছে প্রতিনিয়তই টাকা দাবী করে। প্রতিদিনের ন্যায় সর্বশেষ গত ১৩ মে বিকেলে পূণরায় ভাবির কাছ টাকা দাবী করে না পেয়ে বাড়িতে ঢুকে ধারালো অস্ত্র লোহার রড দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় গুরুতর জখমপ্রাপ্ত হন ভাবি পারভিন আক্তার (৩০)। আত্মচিৎকার শুনে তাকে বাঁচাতে স্বামী নাছির উদ্দিন (৩৮) ও অপর দেবর বাদী সাহাব উদ্দিন এগিয়ে গেলে অভিযুক্তরা তাদের উপরও হামলা চালায়। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্য পারভীন আক্তারের হাত ভেঙ্গে গেছে ও মাথায় গুরুতর আঘাত রয়েছে। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। কিন্তু হাসপাতালে করোনা রোগির ঝুকি থাকায় পারভিন আক্তারকে এর বদলে প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। যার কারণে মালুমঘাট মেমুরিয়াল খ্রীষ্টান হাসপাতালে ভর্তি করে হাতের অপারেশন করা হয়েছে। এখনো তার অবস্থা আশংখাজনক রয়েছে।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ হাবিবুর রহমান জানান, ঘটনার বিষয়ে লিখিত এজাহার পাওয়ার উপপরিদর্শক মোঃ ইসমাইলকে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।