সন্ত্রাসী অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ২৭ পরিবারের পাশে দাড়ালেন রেজাউল করিম

received_581455779446123

চকরিয়া প্রতিনিধি

কক্সবাজার চকরিয়ায় সন্ত্রাসী কতৃক ভূমি দখলে নিতে আগুন দেওয়ার ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৩০ পরিবারের পাশে দাড়ালেন ককক্সবাজার জেলা আওয়ামিলীগ এর সহসভাপতি, ৯০ এর ছাত্রনেতা ও চকরিয়া উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম, সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামিলীগ এর সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান।

শুক্রবার (২২ মে) দুপুরে ক্ষতিগ্রস্ত এই পরিবাররের পাশে গিয়ে দাড়ালেন তিনি। ঘটনার দিন থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের নিয়মিত খোঁজখবর নিচ্ছিলেন ককক্সবাজার জেলা আওয়ামিলীগ এর সহসভাপতি, ৯০ এর ছাত্রনেতা ও চকরিয়া উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম।

উল্লেখ্য, গত ১৪ এপ্রিল ভোররাতে চকরিয়া উপজেলার মাতামুহুরি নদীর তীরে জেগে উঠা চর দখলে নিতে ভূমিদস্যু সন্ত্রাসীরা উক্ত এলাকায় বসবাসরত মানুষের বসতবাড়িতে আগুন দেয়। উক্ত ঘটনায় ২৬ পরিবার সম্পূর্ণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ও একজন নারী নিহত হয়।

করোনা ভাইরাসের মহামারীর ত্রাণ সামগ্রী উপহার ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে থাকায় আবেগাপ্লুত পরিবার গুলো কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। উক্ত ৩০ পরিবারের পাশাপাশি কর্মহীন ৭০ পরিবারকেও ত্রাণ সামগ্রী উপহার দেন তিনি।

ত্রাণ সামগ্রী উপহার দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে কক্সবাজার জেলা আওয়ামিলীগ এর সহ সভাপতি রেজাউল করিম জানান, বিশ্বের এই ক্রান্তিলগ্নে যে বা যারা এসব সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করেছে তাদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি করেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে নতুন ভাবে বসতি নির্মানে সরকারি সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি আরও বলেন, কক্সবাজার চকরিয়া উপজেলার মানুষের পাশে সারাজীবন ছিলেন আছেন এবং থাকবেন।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কৈয়াবিল ইউনিয়ন আওয়ামিলীগ এর সভাপতি ফিরোজ আমহদ চৌধুরী, সহ সভাপতি জাফর আলম, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামিলীগের সদস্য তৌহিদুল ইসলাম তুহা, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ আকিত হোসেন সজিব, কক্সবাজার কলেজ ছাত্রলীগের সহ সহ সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন বাপ্পি, ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোস্তফা, সেফায়েত কবির, সাজ্জাদ, সাদমান, মুরাদ, সাখাওয়াত সহ আরও অনেকে।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।