চকরিয়ার বরইতলীর হত্যা,ডাকাতি অস্ত্র সহ একাধিক মামলা কানা মহিউদ্দীন গ্রেফতার, এলাকায় স্বস্তি

IMG_20200601_215906

বরইতলীর শীর্ষ সন্ত্রাসী হত্যা,অস্ত্র সহ একাধিক মামলা কৈয়ারবিল খিলছাদকে পুড়িয়ে মানুষ সহ ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়া মামলার আসামী মহিউদ্দীন(প্রকাশ কানা মহিউদ্দীন) গ্রেফতার,এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে।

চকরিয়া বরইতলী ইউনিয়নের শীর্ষ সন্ত্রাসী হত্যা,অস্ত্র,দখল,চাঁদাবাজি,মারামারি ও সর্বশেষ কৈয়ারবিল খিলছাদকের রাতের আঁধারে সন্ত্রাস বাহিনী দিয়ে ২৭ঘরবাড়ি এবং মানুষ পুড়িয়ে হত্যা সহ একাধিক মামলার আসামী মহিউদ্দীন(প্রকাশ কানা মহিউদ্দীন) অবশেষে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে,চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মতিউল ইসলামের বিচক্ষণতা ও নির্দেশে,থানার অফিসার ইনচার্জ হাবিবুর রহমানের নির্দেশে হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির আইসি আমিনুল ইসলাম এই শীর্ষ সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করে। শীর্ষ এই সন্ত্রাসীর গ্রেফতারে এলাকাবাসী স্বস্তি জানিয়ে পুলিশকে প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছে।এই সন্ত্রাসী কানা মহিউদ্দীন এবং তার তিন ভাইয়ের নেতৃত্ব রয়েছে ৮/১০জনের সন্ত্রাসী বাহিনী,রয়েছে বড় বড় গডফাদার,তাদের নেতৃত্ব এলাকায় দখল-বেদখল,সরকারী পাহাড়কাটা,মানুষের ঘরবাড়ি লুটপাট,চাঁদাবাজি নিত্যদিনের ঘটনা।চাহিদা মত চাঁদা না দিলে চলে মারধর হত্যা সহ জঘন্য অপরাধ, বিভিন্ন সময়ে একাধিক ঘটনা ঘটলেও এলাকাবাসী ভয়ে টু শব্দ করতে পারেনা,ইতিপূর্বে সে লম্বা বন্দুক সহ হত্যা মামলা নিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিল।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।