চকরিয়া পৌরসভায় সাড়ে ৪ হাজার পরিবার ডাব্লিউএফপি ’র খাদ্য সহায়তা পেয়েছে

received_574430746608719

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ
কোন মানুষ অর্ধাহারে অনাহারে থাকবে না – এমপি জাফর আলম
চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি ঃ প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র সময় করোনার মহামারীতে একটি মানুষও অর্ধাহারে-অনাহারে থাকবে না। জাতির পিতার কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সবসময় দুর্যোগ মোকাবেলায় এ দেশের মানুষের পাশে থাকে। দুর্যোগের সময় ঘরে থাকা অসহায় মানুষের খাদ্য নিশ্চয়তা দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। করোনার ভয়াবহ সংকটে যদি হতদরিদ্র মানুষের পাশে না দাঁড়ায়, তা হবে অন্যায়। তাই করোনায় বিপন্ন মানুষের মধ্যে আওয়ামীলীগের খাদ্য সহয়তা সহ নানা মুখী সহায়তা অব্যাহত আছে। বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচী (ডাব্লিউএফপি) অর্থায়নে বেসরকারী সংস্থা এসএআরপিভি চকরিয়া পৌর সভায় সাড়ে ৪ হাজার পরিবারকে সোমবার থেকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করে যাচ্ছে। এই খাদ্য সহায়তা প্রদান করা প্রসঙ্গে কক্সবাজার-১ চকরিয়া পেকুয়া আসনের এমপি জাফর আলম বিএ(অনার্স)এমএ এসব কথা বলেন। কোভিড- ১৯ সংক্রমন প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় চকরিয়া পেকুয়ার এমপি জাফর আলম বিএ(অনার্স)এমএ এর সহযোগিতায় ডাব্লিউএফপি কর্তৃক স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য স্থানীয় সরকারকে সম্পৃক্ত করে এ কর্মসূচীটি বাস্তবায়ন করছে চকরিয়ার বেসরকারী সংস্থা এসএআরপিভি (সোসাল এ্যাসিস্ট্যান্স এন্ড রিহ্যাবিলিটেশন ফর দি ফিজিক্যালি ভালনারেবল)।
সোমাবর ও মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল পর্যন্ত খুব সুন্দরভাবে সামাজিক দুরত্ব বাজায় রেখে চকরিয়া পৌর সভার বিভিন্ন ওয়ার্ড়ে সাড়ে ৪ হাজার পরিবারের মাঝে খুবই সুন্দর পরিবেশে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। এ খাদ্য সহায়তা বিতরণ উদ্বোধন করেন চকরিয়া পৌর মেয়র আলমগীর চৌধুরী। সময় উপস্থিত ছিলেন, এসএআরপিভি’র আঞ্চলিক পরিচালক কাজী মাকসুদুল আলম মুহিত, এসএআরপিভি’র ত্রান সমন্বয়ক ইয়াসমিন সোলতানা, মাহমুদ ইমরান, আকতার কামাল মিরাজ, রুবি, আবদুল মালেক, অনুপ চন্দ্র, রুবি, মোঃ জিয়া, মোঃ রাব্বির হোসেন, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম।
এসএআরপিভি’র আঞ্চলিক পরিচালক কাজী মাকসুদুল আলম মুহিত জানান; এ কর্মসুচীর আওতায় করোনা সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় নি¤œ আয়ের চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার ২২ হাজার পরিবারকে এ খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এ কর্মসূচীর আওতায় এসেছে চকরিয়া উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ১৮ ইউনিয়নের ১৬ হাজার ৫শত পরিবার ও পেকুয়া উপজেলা ৭ ইউনিয়নের সাড়ে ৫ হাজার পরিবার। চার মাসে চার কিস্তিতে চকরিয়ার ১৬ হাজার ৫শত পরিবারের প্রতি পরিবার পাবেন ৬০ কেজি ভাল মানের চাল, ৫ কেজি হাই এনার্জি বিস্কুট ও নগদ ৪ হাজার ৫শত টাকা। চকরিয়ায় বিতরণ শেষ হলে একই কর্মসূচী পেকুয়া উপজেলার ৭ ইউনিয়নেও একযোগে শুরু হবে। প্রতিদিন ৩টি ইউনিয়নে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। #

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।