চকরিয়ায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মাষ্টার্স পড়ুয়া ছাত্রীকে পথরোধ করে বখাটের হামলা

received_282549406187606

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ
চকরিয়ায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এবং বখাটের উশৃঙ্খল আচরণ ও উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে মাষ্টার্স পড়ুয়া ছাত্রী উম্মে কুলছুম ডালিয়া (২২)কে পথরোধ করে মারধর করেছে বখাটে শোয়াইবুল ইসলাম (২২)। গত ৩জুলাই’২০ইং বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের জমিদারপাড়া গ্রামে ঘটেছে এ ঘটনা। হামলার শিকার উম্মে কুলছুম ডালিয়া ওই এলাকার আছিউর রহমানের মেয়ে ও কক্সবাজার সরকারি কলেজের মাষ্টার্স পড়ুয়া ছাত্রী ও হামলাকারী বখাটে শোয়াইবুল ইসলাম একই এলাকার মোঃ কালুর পুত্র।
প্রাপ্ত অভিযোগে ও স্থানীয় সূত্র জানায়, কক্সবাজার সরকারি কলেজের মাষ্টার্স পড়ুয়া ছাত্রী উম্মে কুলছুম ডালিয়াকে বিগত ৬মাস পূর্বে থেকে কলেজে যাওয়া-আসার পথে এবং বাড়িতে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ওড়না ধরে টানাটানি, খারাপ প্রস্তাবসহ বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে আসছিলো উল্লেখিত উশৃঙ্খল, বখাটে, দুশ্চরিত্রবান শোয়াইবুল ইসলাম। উম্মে কুলছুম ডালিয়া তাকে বিভিন্নভাবে বাধা নিষেধও করে আসছিলো। ইতিপূর্বেও তাকে ও তার মাকে গতিরোধ করে একবার মারধরও করেন।স্থানীয় গন্যমান্য লোকজন ও অভিভাবকদের ঘটনার বিষয়ে জানালেও কোন তোয়াক্কা করছেনা ওই বখাটে। সর্বশেষ গত ৩জুলাই’২০ইং বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ঢেমুশিয়া জমিদারপাড়া এলাকায় ছাত্রীর ফুফি রুবিনা আক্তারকে সাথে নিয়ে ফুফির বাড়ি হতে নিজেদের বাড়ি ফেরার পথে বখাটে শোয়াইব আকর্ষ্মিকভাবে পৌছে তাদের গতিরোধ করে এবং প্রেম নিবেদন করবে কিনা জানতে চায়। তাতে রাজি না হয়ে উল্টো প্রতিবাদ করায় অশ্লীল আচরণের পাশাপাশি টানা হেচড়া করে। এক পর্যায়ে মুখে ও নাখে ঘুষি মেরে রক্তাক্ত জখম করে। পরে জখমী ও ফুফির চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ও পরিবারের সদস্যরা খবর পেয়ে এগিয়ে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন ভূক্তভোগি পরিবার। তারা বখাটে শোয়াইবের গ্রেফতার পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণে প্রশাসনের কাছে আইনী সহায়তা চেয়েছেন।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।