চকরিয়ায় গণধর্ষন মামলার দুই আসামী অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার

received_302497837824569

আবদুল মজিদ,চকরিয়া

কক্সবাজারের চকরিয়ায় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নববধূ ও এক কিশোরীকে গণধর্ষণে জড়িত চিহ্নিত সন্ত্রাসী একাধিক মামলার পলাতক আসামী মোঃ জয়নালকে (৩৮) গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পরে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকারোক্তি মতে তার বাড়ি থেকে দুইটি দেশীয় তৈরি বন্দুক ও ৯ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করে।
রোববার (৬জুলাই) রাতে চকরিয়ার হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বরইতলী ইউনিয়নের মছনিয়াকাটা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। ধৃত মোঃ জয়নাল ওই এলাকার মৃত আব্দুল্লাহর ছেলে।

হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) আমিনুল ইসলাম বলেন, গণধর্ষণের ঘটনায় মোঃ জয়নাল জড়িত বলে ওই ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার এজাহার নামীয় ও সম্প্রতি ধৃত আসামি মোঃ মোরশেদ প্রকাশ খুরশেদ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। এরপর থেকে মোঃ জয়নালকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালানো হয়। রোববার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে মছনিয়া কাটা স্টেশন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। এসময় তাকে পুলিশ ফাঁড়িতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে, এক পর্যায়ে গণধর্ষণের ঘটনায় ব্যবহৃত অবৈধ অস্ত্র গুলো তার হেফাজতে আছে বলে স্বীকার করেন। পরে রাত আড়াইটার দিকে তার বাড়ির বারান্দার মাটির নিচ থেকে ১টি ৩৬ইঞ্চি ১নলা বন্দুক ও ১টি ২৫ ইঞ্চি লম্বা এলজি এবং ৯রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন, গ্রেফতারকৃত মোঃ জয়নাল পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গণধর্ষণে জড়িত থাকা ও নিজ হেফাজতে অবৈধ অস্ত্র রাখার কথা স্বীকার করে সে আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে। পরে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণ করেছে। এরপূর্বে গণধর্ষণ মামলায় ধৃত আসামি মোঃ মোরশেদ প্রকাশ খোরশেদও আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। আদালত তাকেও কারাগারে প্রেরণ করেছে।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।