পেকুয়ার মগনামায় ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে অন্যের জমি জবর দখলের অভিযোগ

received_2723406877935389

পেকুয়া প্রতিনিধি
কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড়ের ইউপি সদস্য জাইদুল হকের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অন্যের ৮০ শতক জমি জোরপূর্বক সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে জবর দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ভূক্তভোগী জমির মালিক থানায় জবরদখলকারী ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেনা বলে জানা গেছে। এছাড়াও জমির প্রকৃত মালিককে প্রতিনিয়তই নানান ধরনের হুমকি অব্যাহত রেখেছে ওই ইউপি সদস্য ও তার লোকজন।
মগনামায় জমি দখলের সাথে জড়িত ইউপি সদস্যের নাম জাইদুল হক ও তার ভাইআবছার। তারা মগনামা ইউনিনের মরিচ্যাদিয়া গ্রামের মৃত আবদুস সালামের পুত্র। স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের ইশারা-ইন্দনে ওই ইউপি সদস্য ও তার ভাই অন্যের জমি জবর দখলে জড়িয়ে পড়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।
জমি জবর দখলের ঘটনাটি ঘটে গত ২৮/০৭/২০২০ ইংরেজী তারিখে সকালে মগনামা ইউনিয়নে মরিচ্যাদিয়া গ্রামে।
এ নিয়ে ভূক্তভোগী ওই গ্রামের হাজী ছগির আহমদ মাষ্টারের পুত্র এস এম বেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে পেকুয়া থানায় জমি জবর দখলের সাথে জড়িত ইউপি সদস্যসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। কিন্তু অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওই দখলবাজ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি থানা পুলিশ। পুলিশ কোন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ না করাই চরমভাবে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে ভূমি জবর দখলকারী ইউপি সদস্য ও তার লোকজন।
পেকুয়া থানায় দায়েরকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে, পেকুয়া উপজেলার মগনামা মৌজার বিএস ৭৬৪ নং খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিক মরিয়ম খাতুন ও মনিরা খাতুন মরণে ওয়ারিশ মোছাদ্দেক হোছাইন চৌধুরী মরণে তৎ ওয়ারিশ মোহাম্মদ হাসান গং থেকে ২৫/০৫/২০১১ ইংরেজী তারিখে বিএস খতিয়ান নং ৭৬৪ ও বিএস দাগ নং ৭০৪৮ এর রেজিষ্ট্রীযুক্ত ৩৩৫০ নং কবলেমূলে ৮০ শতক জমি বেলাল উদ্দিন জায়গা খরিদ করেন। জমি খরিদ করার পর থেকে তিনি শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ করে আসছিলেন। কিন্তু তিনি ওই জমি খরিদ করার পর থেকে উক্ত জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পড়া মগনামা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড়ের ইউপি সদস্য মরিচ্যাদিয়ার জাইদুল হক গংয়ের। তারা বিভিন্ন সময়ে উক্ত জমি জবর দখলের জন্য নানান ধরনের অপচেষ্টা শুরু করে। অথচ জাইদুল হক গং উক্ত জমিতে কোন প্রকার দখল নাই, অতীতেও ছিলনা। তারা বিভিন্ন সময়ে উক্ত ৮০ শতক জমি জবর দখলের জন্য হুমকি দিয়ে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় ভূমিদস্যু জাইদুল হকের নেতৃত্বে ঘটনার দিন একদল লোক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বেলাল উদ্দিনের খরিদকৃত জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে জোরপূর্বক জবর দখলের মাধ্যমে জমির চারপাশে ঘেরাও দিয়ে অন্যায়ভাবে দখল করে নেয়। এসময় বেলাল উদ্দিনের ভাবী জান্নাতুল ফেরদৌস ও তার ভাই মিফতাহ উদ্দিন দখলকারীদের বাধা প্রদান করেন। এতে দখলবাজ জাইদুল হক ও তার লোকজন তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা করে। এতে তারা আহত হয়।
ভূক্তভোগী পরিবারের মিফতাহ উদ্দিন জানান, তাদের খরিদকৃত জায়গায় অন্যায়ভাবে সন্ত্রাসী দলবল নিয়ে জাইদুল হক গং জবর দখল করে নিয়েছে। জমি জবর দখলকারীর বিরুদ্ধে প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ করে প্রতিকার চাইবেন বলে জানান।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে জাইদুল হক এলাকায় নানান ধরনের অপরাধ কর্মকান্ডের সাথে জড়িয়ে পড়েছে। অন্যের জমি জবর দখল, সরকারী বিভিন্ন প্রকল্পে অনিয়মসহ এমন কোন অপরাধ নাই যা জাইদুল হক ও তার লোকজন সংগঠিত করছেনা। স্থানীয়রা অবিলম্বে জমি জবর দখলকারী ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে আ্ইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসক, র‌্যাব, পুলিশ সুপারসহ প্রশাসনের কাছে জোরালো দাবি জানিয়েছেন।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।