চকরিয়ায় আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে জমি থেকে মাটি লুট ও হামলার অভিযোগ

malumghat chakaria 28-9-20

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে জমি থেকে মাটি লুট, জবর দখল চেষ্টা ও হামলার অভিযোগ উঠেছে। হামলায় জমি লাগিয়ত গ্রহীতা এক প্রতিবন্ধী গুরুতর আহত হয়েছে। গত ২৮ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২.১৫ ঘটিকার সময় উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মালুমঘাট চা-বাগান কোনাপাড়া গ্রামে ঘটেছে এ ঘটনা।
এনিয়ে মালুমঘাট চা-বাগান গ্রামের মরহুম হাজী মোহাম্মদ জামালের পুত্র আলী হোছাইন (৪০) বাদী ২৮ সেপ্টেম্বর রাতে থানায় একটি লিখিত এজহার দায়ের করা হয়েছে। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; একই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ছগিরশাহ কাটা গ্রামের বদিউল আলম ফকিরের পুত্র মো: দিদারুল ইসলাম, বেদারুল ইসলাম ও জিয়াবুল করিম, মৃত বজুলুক মিয়ার পুত্র রাহমত উল্লাহ, মো: নুরুচ্ছফা মৃত জানবক্স পুত্র বদিউল আলম ফকিরকে।
অভিযোগে জানাগেছে, উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মালুমঘাট চা-বাগান কোনাপাড়া গ্রামে রিংভং মৌজার বিএস খতিয়ান নং ৫০৪, ৫০৫, ৫০৬ ও ৫০৭ দাগের ১.২৯ একর জমির মালিক ও শান্তিপূর্ণ ভোগ দখলদার সৈয়দ মাজাহারুল আনোয়ার, গোল ছাবের বেগম,নুর জাহান, এলেমুন নাহার, আয়েশা আক্তার, মরহুম গোলাম ছোবহান। তাদের কাছ থেকে উক্ত জমি লাগিয়ত নেন হামলার শিকার আলী হোছাইন। এনিয়ে অভিযুক্তরা জমি জবর দখলে নিতে বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি অব্যাহত রাখলে জমি মালিক পক্ষের সৈয়দ মাজাহারুল আনোয়ার বাদী হয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত কক্সবাজারে ১৪৪ ধারার আবেদন চেয়ে একটি এমআর মামলা (নং ৩৫১/২০ইং) দায়ের করেন। মামলাটি আমলে নিয়ে আদালত সহকারি কমিশনার (ভূমি) চকরিয়াকে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দেয়ার এবং চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জকে জমিতে শান্তিশৃংখলা বজায় রাখার জন্য নির্দেশনা দেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে গত ২৮ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২.১৫ ঘটিকার দিকে অভিযুক্তরা ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে জমি জবর দখল ও মাটি কেটে লুটের চেষ্টা করে। এসময় জমি লাগিয়ত গ্রহীতা শাররীক প্রতিবন্ধী আলী হোসেন বাধা দিলে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে বেধম প্রহার করে। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ঘটনার সময় তার কাছ থেকে জমি লাগিয়তের নগদ ৫০ হাজার টাকা ও ব্যবহৃত একটি ২২ হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়। অভিযুক্তরা বর্তমানেও হুমকি ধমকি অব্যাহত রেখেছে।
চকরিয়া থানার ওসি সাকের মোহাম্মদ যুবাইর বলেন, ঘটনার বিষয়ে একটি লিখিত এজাহার দিয়েছেন। ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।##

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।