চকরিয়ায় জমি থেকে ধান লুট ও জবর দখলে বাধা দেয়ায় হামলা, বয়োবৃদ্ধসহ ৩জনকে কুপিয়ে জখম

1602301979213_B.M CHAR CHAKARIA pic 9-10-20

চকরিয়া প্রতিনিধি:
চকরিয়ায় চাষাবাদী জমির ধান লুট পরবর্তী রবিশষ্য চাষাবাদে ব্যাঘাত ও জবর দখলে বাধা দেয়ায় দখলবাজ চক্র হামলা চালিয়েছে। হামলায় একই পরিবারের বয়োবৃদ্ধসহ ৩জন আহত হয়েছে। উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ বহদ্দারকাটা গ্রামে ৯অক্টোবর (শুক্রবার) সকাল ৮টার ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে ভূক্তভোগী পরিবারের জহির আলমের পুত্র মো: আবু ইউসুফ (৩০) বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেন। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; একই এলাকার মৃত হেদায়ত আলীর পুত্র্র জাকের হোছন ও বারেক হোছন, নাদের হোছনের পুত্র মৌলভী মিজানুর রহমান, আইয়ুব খানের পুত্র তৌহিদুল ইসলাম, জাকের হোছনের পুত্র মো: রোকন উদ্দিন ও মো: রিদুয়ান এবং উত্তর বহদ্দারকাটা গ্রামের মৃত ফজল করিমের পুত্র আক্তার আহমদসহ অজ্ঞাত আরো ১০/১২জনকে।
অভিযোগে জানাগেছে, চকরিয়া উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ বহদ্দারকাটা গ্রামে ভেওলা মানিকচর মৌজার বিএস খতিয়ান নং ৬০৩ ও দাগ নং ৯১০, ৯১১ ও ৯১২ এর ৬০শতক জমির বৈধ মালিক বাদী পক্ষ। তারা দীর্ঘকাল ধরে চাষাবাদ করে শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ দখলেও রয়েছেন। ঘটনার দিন অভিযুক্তরা অবৈধভাবে জমি জবর দখলে নিতে বাদী মো: আবু ইউসুফ বাধা সৃষ্টি করেন। ইতিপূর্বেও জমি থেকে চাষাবাদী ধান কেটে লুট করে নিয়ে যায়। এনিয়ে বিজ্ঞ চকরিয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা (নং সিআর ৭৯২/২০) দায়ের করেন। মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে। বর্তমানে জমিতে রবিশষ্য চাষ করার উপযুক্ত সময় হলে ৯অক্টোবর (শুক্রবার) সকাল ৮টার দিকে জমিতে বেগুন ক্ষেত চাষাবাদ করতে গেলে অভিযুক্তরা ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে মালিক পক্ষের মো: আবু ইউসুফ (৩০)কে কুপিয়ে ও পিঠিয়ে গুরুতর জখম করে। তাকে বাঁচাতে তার বয়োবৃদ্ধ দাদা আবুল হোসেন (৯২) ও পিতা জহির আলম (৬০) এগিয়ে গেলে তাদেরকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারধরে জখম করে। স্থানীয়রা ও পরিবারের অপরাপর সদস্যরা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। হামলাকারীরা বর্তমানেও নানাভাবে হুমকি ধমকি অব্যাহত রেখেছে।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানিয়েছেন, ঘটনার বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। তা প্রাথমিকভাবে এসডিআর ৭৫৩/২০ হিসেবে লিপি করে তদন্তের জন্য উপপরিদর্শক জিয়া উদ্দিনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্তে সত্যতা পেলে মামলা গ্রহণসহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে তিনি একজন বয়োবৃদ্ধের উপর হামলাটি দু:খজনক বলে মন্তব্য করেন।

, বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।