চকরিয়ার বিএমচরে বসতঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট, আহত-২

received_290827652181102

চকরিয়া প্রতিনিধি:
চকরিয়ায় বসতভীটার বিরোধে হামলা, ভাংচুর ও বাগানের শতাধিক গাছ কেটে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। হামলায় বাধা প্রদানকালে ২জন আহত হয়েছে। গত ৪ নভেম্বর ভোর রাত ৩টার দিকে উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের উত্তর বদ্দারকাটা কন্যারকুম এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা।
এঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মৃত হাছন আলীর পুত্র রেজাউল করিম বাদী হয়ে ৫নভেম্বর’২০ইং চকরিয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি ফৌজদারী অভিযোগ (সিআর মামলা) দায়ের করা হয়েছে। এতে অভিযুক্ত (আসামী) করা হয়েছে একই এলাকার আবু বক্করের পুত্র মিজবাহ উদ্দিন, মোহাম্মদ সাচির পুত্র জকির আলম, দেলোয়ার হোসেনের পুত্র ফরিদুল আলম, নুরুল আলমের পুত্র শহিদুসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪জনকে।
অভিযোগে জানাগেছে, বাদী রেজাউল করিম গংয়ের সাথে বিবাদী পক্ষের মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হলে স্থানীয়ভাবে আপোষ নিষ্পত্তি হয়। এর ধারাবাহিকতায় সার্ভেয়ার দিয়ে জমি পরিমাপও করা হয়। কিন্তু জমি পরিমাপে নিজেদের (বিবাদীপক্ষ) আয়ত্তে জমি না যাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে অভিযুক্তরা সন্ত্রাসী ভাড়া নিয়ে দা, কিরিছ, লোহার রড হাতুড়ী নিয়ে বসতঘর ভাংচুর ও মালামাল লুটপাট চালায়। এক পর্যায়ে রাতের আধারে গিয়ে বাগানের ফলজ ও বনজসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় শতাধিক গাছ কেটে সাবাড় করে ফেলে অভিযুক্তরা। হামলায় হাসন আলীর পুত্র রেজাউল করিম (২৮) ও তার স্ত্রী জেসমিন আক্তার (২২) গুরুতর অহত হয়। গৃহকত্রী জেসমিন আক্তারকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টাও করে। অহতদের চকরিয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসময় এক ভরি ৪ আনা ওজনের স্বর্ণালংকারসহ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ভূক্তভোগি পরিবারের আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ পূর্বক আইনী সহায়তা চেয়েছেন।

, বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।