সর্বশেষ শিরোনাম
কক্সবাজার এলও শাখায় ৫ দালাল আটক ও কয়েকজন পলাতকনোটারী মূলে ও কলেমা পড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ, নোটারী ও রেজিষ্ট্রি মূলে কামাল-কাসফিয়া’র বিয়েআল-রাজি চক্ষু হাসপাতালচকরিয়া হাফেজ রুহুল আমিন হত্যায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবীতে মানববন্ধনবদরখালী ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের তথা কথিত কমিটি প্রত্যাখান করে কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি গঠনের দাবীচকরিয়ার বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানচকরিয়ার বদরখালীতে এক ইয়াবা ব্যবসায়ীর অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকাবাসীচকরিয়ার বরইতলীতে চৌকিদার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ, ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা এমপি’রচকরিয়ায় মেসার্স আকিফ পর্দা বিতান ও নিউ চকরিয়া আনোয়ার বেডিং ষ্টোর শোরুম উদ্বোধনব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত চকরিয়া পৌরসভার স্টাফ রকিব হাসানকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

চকরিয়া পেকুয়ায় পাউবোর ব্লক নির্মানে পাথরের পরিবর্তে বিল্ডিং ভাঙ্গা, নীরব পাউবো!

[post-views]

chakaria-pekua 7-11-2018

চকরিয়া অফিস:
আগে শুনেছি বিভিন্ন উন্নয়নকাজে রডের পরিবর্তে বাঁশ এবং বালির পরিবর্তে পাহাড়ের মাটির ব্যবহারের কথা শুনলেও এবার পাথরের পরিবর্তে পরিত্যক্ত বিল্ডিং ও ব্রিজের ফাইলিং পিলারের ভাঙ্গা অংশ ব্যবহারের দৃশ্য। পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) কক্সবাজার অঞ্চলের আওতাধীন “পেকুয়া মগনামা ও চকরিয়ার বিভিন্ন স্থানে বেঁড়িবাধের” ব্লক নির্মাণে এই অনিয়ম দেখা যায়। পাউবো’র কক্সবাজার অঞ্চলের সুপারেন্টেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মো. রুহুল আমিন জানিয়েছেন, এই অনিয়ম খুবই দু:খজনক। তদন্ত সাপেক্ষে দ্রæত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
কক্সবাজারের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ইন্টারন্যাশনাল ৫২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪টি প্যাকেজের অনুকূলে পাউবো’র উক্ত উন্নয়ন প্রকল্প সমূহ বাস্তবায়ন করছে। পাথরের সহজলভ্যতার কারণে প্রকল্পের বøক নির্মাণের স্থান হিসেবে চকরিয়া-লামা উপজেলার সীমান্তবর্তী ফাঁসিয়াখালীর কুমারী ব্রীজ নামক এলাকাটি নির্বাচন করেন উন্নয়ন ইন্টারন্যাশনাল এর স্বত্তাধিকারী আতিকুল ইসলাম (সিআইপি)। বøক নির্মাণ স্থান লামার ফাঁসিয়াখালী ও চকরিয়ার হাসেরদীঘি এলাকার স্থানীয় লোকজন জানান, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ইন্টারন্যাশনাল বøক নির্মাণে পাথর ব্যবহার না করে পরিত্যাক্ত বিল্ডিং, দেয়াল ও ব্রিজের ভাঙ্গা অংশ পাথরের আদলে তৈরী করে ব্যবহার করছে। তাছাড়া বøক নির্মাণে পাথর-বালি-সিমেন্ট মিশ্রণের খুব কম পরিমাণে সিমেন্ট দেয়া হচ্ছে। প্রতি ব্যাগ সিমেন্টের সাথে ১২ ঝুঁড়ি পাথর ৬ ঝুঁড়ি বালি ব্যবহার করা হচ্ছে। ৫২ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজে দায়িত্বরত সহকারী প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দিন প্রায় অনুপস্থিত থাকেন বলেও তারা জানায়। এতে করে ঠিকাদারের লোকজন তাদের মনগড়া যেনতেন ভাবে কাজ করছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এই এলাকার কয়েকজন পাথর ব্যবসায়ী বলেন, তারা জনমানবহীন ও প্রকল্প এলাকা হতে ২৪ কিলোমিটার দূরে কাজটি করছে চুরি করার জন্য। বøকে বিল্ডিং ও ব্রিজের ভাঙ্গা অংশের ব্যবহার করছে। পাশাপাশি কিছু বøকে ভাল পাথর ব্যবহার না করে নিন্মমানের মাটি পাথর ব্যবহার করছে।
ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাইট ম্যানাজার নেজাম উদ্দিন বলেন, বিল্ডিং ও ব্রিজের ভাঙ্গা অংশ গুলো কিভাবে আসল আমি জানিনা।
পাউবো’র সহকারী প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দিন বলেন, নানা ব্যস্ততার কারণে নিয়মিত যাওয়ার সুযোগ হয়না। উন্নয়ন ইন্টারন্যাশনাল এর স্বত্তাধিকারী আতিকুল ইসলাম (সিআইপি) বলেন, লামায় পাথর বেশী পাওয়া যায় বলে এখানে ব্লক নির্মাণের কাজ করছি। পাথর ব্যবসায়ীরা রাতে মাল দেয়। কিভাবে বিল্ডিং ও ব্রিজের ভাঙ্গা অংশ এখানে এল আমি জানিনা। সরকারী দলের লোকজন পাথর দেয় না নিলে তারা নানা সমস্যা করে।
এই বিষয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন বলেন, পাউবো’র দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের কাছ থেকে জেনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে

, বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।