সর্বশেষ শিরোনাম
চকরিয়া প্রেসক্লাব সভাপতি আবদুল মজিদকে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের গণসংবর্ধনাচকরিয়ায় ৩মাসের অন্ত:স্বত্ত্বা স্ত্রীকে নির্যাতন করে তাড়িয়ে খাইরু নামের এক প্রতারকের ৩য় বিয়েঅন্ধকারাচ্ছন্ন সমাজের আলো ও সফল নেতৃত্বের মডেল ছিলেন জিএম রহিমুল্লাহ‘তারুণ্যের আলো’ সামাজিক সংগঠনের আত্মপ্রকাশজেলা জজ আদালতের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিতচকরিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিতজাতীয় শোক দিবস ও শাহাদাত বার্ষিকী এমপি জাফর আলমের ব্যবস্থাপনায় চকরিয়া-পেকুয়ায় ৩০ পশুর গণভোজচকরিয়া পৌরসভায় মসজিদ ভিত্তির আদর্শ সমাজ ব্যবস্থা কাহারিয়াঘোনা ও করইয়াঘোনা গ্রাম সর্বমহলের নজর কেড়েছেচকরিয়া গ্রামার স্কুলে ৩ কোটি টাকার নতুন ভবন বরাদ্ধ দেয়া হবে ঈদপূর্ণমিলনীতে এমপি জাফরনিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

ভয়ভীতি দেখিয়ে ভোটারদের দমিয়ে রাখা যাবে না -লুৎফুর রহমান কাজল

[post-views]

FB_IMG_1545829046682

ভয়-ভীতি দেখিয়ে জনগণকে দমিয়ে রাখা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী লুৎফুর রহমান কাজল।
তিনি বলেন, ৩০ তারিখের নির্বাচন শুধু নির্বাচন নয়, এদিন বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করবে। আওয়ামী লীগের জুলুম-নির্যাতনের বিরুদ্ধে জনগণ ঐক্যবদ্ধ হয়ে গেছে। ব্যালট হাতে পেলেই তার প্রমাণ মিলবে।
বুধবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকালে কক্সবাজার সদর উপজেলা বিএনপির আয়োজনে ঈদগাঁও হাইস্কুল মাঠে জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাজল একথা বলেন।
তিনি বলেন, আমাদের ওপর সরকারি দলের হামলা মামলা চলছে। ভাঙচুর করা হচ্ছে নিরীহ মানুষের ঘরবাড়ি। নিজেরা অফিস-পোস্টার পুড়িয়ে আমাদের নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিচ্ছে। মানুষের মনে ভয় ভীতি তৈরির জন্য পুলিশকে লেলিয়ে দেয়া হয়েছে। জনগণকে ভয় দেখিয়ে কোন লাভ নাই। জনগণ কাদের সাথে আছে ৩০ তারিখ প্রমাণ হবে।
বিএনপি নেতা লুৎফুর রহমান কাজল পুলিশকে জনগণের পক্ষে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, জনগণের মাথার ঘাম পায়ে ফেলা টাকায় আপনাদের বেতন। এক মাঘে শীত যায় না। এ কথা ভুলে গেলে চলবে না।
কাজল বলেন, ৩০ ডিসেম্বর নির্ধারিত হবে কার জয়, কার পরাজয়। মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নির্বাচনের মাঠ থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে চেষ্টা করছে আওয়ামী লীগ।
তিনি অভিযোগ করেন, ঈদগাঁও বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক শওকত আলম, যুবদলের সভাপতি আজমগীর, পোকখালী বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সেলিমসহ অনেক নেতাকর্মীকে মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
জননেতা কাজল ধানের শীষে ভোট দিয়ে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার মাধ্যমে গণতন্ত্র মুক্তি পাবে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন,  মিথ্যা মামলায় যাদের জড়ানো হয়েছে তাদের মুক্ত করতে আপনাদের সকলকে ৩০ তারিখ ধানের শীষে ভোট দিয়ে জয় করতে হবে।
জনসভায় উপস্থিত জনস্রোতে সাবেক এমপি কাজল বলেন, আপনারাই দেশের মালিক, অন্য কেউ নয়। আপনার ভোট আপনাকে দিতেই হবে। পরিবর্তনের জন্য দিতে হবে। দেশে গণতন্ত্রকে নিয়ে আসার জন্য ভোট দিতে হবে। আজকে সারাদেশের মানুষের একটিই আকাঙ্ক্ষা, পবিবর্তন-পরিবর্তন। এই সরকারের পরিবর্তন তারা চায়। তারা আওয়ামী লীগকে সরাতে চায়।

জনসভা নয়, জনস্রোত:
মামলা, হামলা, গ্রেফতার ও পথে পথে বাধা দানের ঘটনা আরো যেন আশীর্বাদই হয়ে ওঠেছে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী জনপ্রিয় ও অহিংস রাজনীতিক লুৎফুর রহমান কাজলের জন্য। বাধা যতই কঠিন হচ্ছে প্রতিবাদী মানুষের স্রোত ততই আবেগীয় ও নাটকীয় হয়ে ওঠছে।
বুধবার কাজল তার শৈশব-কৈশোর কাটানো গ্রাম ঈদগাঁওতে গণসংযোগে গেলে এমন পরিস্থিতিই তৈরি হয়। অথচ তার সভাস্থল ঈদগাঁও হাইস্কুল গেইট দুপুর পর্যন্ত ছিল তালা ঝুলানো। নেই কোন মঞ্চও।
বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে মাত্র ২০ জন কর্মী নিয়ে জনশূণ্য সভাস্থলে প্রবেশ করেন লুৎফুর রহমান কাজল। এরপর ধীরে ধীরে শুরু হয় জন স্রোত।
মুসলিম. হিন্দু, বৌদ্ধসহ নানা ধর্মের মানুষের ছুটে আসে। তৈরি হয় আবেগীয় পরিবেশ। পথে পথে নানা বাধা বিপত্তি পেরিয়ে বিকাল ৫টার মধ্যেই অর্ধলক্ষাধিক মানুষের সমাবেশে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে ওঠে স্কুল প্রাঙ্গণ। সেখানে ট্রাকের উপর দাড়িয়ে জনতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন লুৎফুর রহমান কাজল।
তিনি বলেন, এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা আজ বিপন্ন। আমাদের সকলের ত্যাগ ও রক্তে গড়ে ওঠা এ রাষ্ট্র আজ একদলীয় শাসনের অধীনে। মানুষের কথা বলার অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে। মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিচ্ছে। রাষ্ট্রীয় সম্পদের উপর লুটতরাজ চললেও কাউকে মুখ খুলতে দিচ্ছে না। প্রশাসন যন্ত্র সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষের ট্যাক্সের পয়সায় চললেও তারা দলীয় কর্মীর মতো আচরণ করছে। দেশের গুণীজনদের নানাভাবে অপমান করা হচ্ছে। স্বাধীনতার চেতনা ও গণতন্ত্র আজ বিপন্ন। বিপন্ন স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করে জনগণের মালিকানা ফিরিয়ে আনতে আান্দোলনের অংশ হিসাবে আমরা নির্বাচনে এসেছি। যতই নির্যাতন করুক না কেন, আমরা ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে সকল নির্যাতনের দেব।
লুৎফুর রহমান কাজল বলেন, দেশের স্বাধীনতা যদি বিপন্ন হয়, তা রক্ষার দায়িত্ব জনগণেরও। আমরা যদি দেশের মালিক হয়ে স্বাধীনতা রক্ষা না করি, কারো গোলামের মত কাজ করি, তাহলে কেউ আমাদের স্বাধীনতা এনে দেবে না। আগামী ৩০ ডিসেম্বর সেই স্বাধীনতার দিন বলে মন্তব্য করেন তিনি।
জনসভায় উপস্থিত ছিলেন ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি শহীদুল ইসলাম শহীদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মনজুর আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ শফি, আলমগীর তাজ জনি, জেলা বিএনপির সদস্য ও ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম, অ্যাডভোকেট শাহাব উদ্দিন, ঈদগাঁও ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি, আব্দুস সালাম, জালালাবাদ ইউনিয়নের বিএনপির সভাপতি বজল আহাম্মদ, পোকখালী বিএনপির সহ-সভাপতি সেখুল ইসলাম, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সরওয়ার রোমন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহাদত হোসেন রিপন, সাধারণ সম্পাদক ফাহিমুর রহমান ফাহিম, ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি বেলাল, সহ-সভাপতি সাজ্জাদুল হক, শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক শফিউল আলম শান্ত প্রমুখ।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।