সর্বশেষ শিরোনাম
চকরিয়ায় ৯৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ৪০ প্রিজইডিং অফিসারকে ম্যানেজের অভিযোগ আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরচকরিয়ায় আজ ভোট উৎসব অনিয়মে জড়ালে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে গ্রেফতার ব্যালটে হাত দিলে প্রয়োজনে গুলি-পুলিশ সুপারচকরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাঠে আছেন ১২ প্রার্থী: ভোট দেবেন ২ লাখ ৮৪ হাজার ৫৫৫ জন ভোটারচকরিয়ায় এমপি জাফর আলমকে এলাকা ছাড়ার লিখিত নির্দেশ নির্বাচন কমিশনেরগোপন ব্যালট ছাপিয়ে চকরিয়ায় আনারস মার্কার ফলাফল পাল্টাতে প্রস্তুতি নিয়েছে জনবিচ্ছিন্ন চক্র-সাঈদীচকরিয়ায় অকালে ঝড়ে গেলো নৌকার মিছিলে দূর্ঘটনায় আহত ছাত্রলীগ নেতা ছোটনচকরিয়ায় দোয়াত কলম প্রতীকে চেয়ারম্যান প্রার্থী জহিরের নির্বাচনী শোডাউনে গণজোয়ারচকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের সপ্তাহব্যাপি বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শুরুচকরিয়ায় রেললাইন নির্মাণ কাজের সামগ্রী চুরিসোমবার চকরিয়াতে ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

নতুন মন্ত্রিসভায় নেই প্রধানমন্ত্রীর কোনো আত্মীয় .

[post-views]

sheikh_hasina_family

একটানা তৃতীয় বার সরকার গঠন করল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। দলটির সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন মন্ত্রিসভা আজ ৭ জানুয়ারি, সোমবার বিকাল শপথ নিয়েছে।

বঙ্গভবনের দরবার হলে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথবাক্য পাঠ করান।

প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভার সদস্য ৪৭ জন। এর মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ মন্ত্রী ২৫ জন, প্রতিমন্ত্রী ১৯ জন, আর তিনজন উপমন্ত্রী। টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী তিনজন। তবে নতুন মন্ত্রিসভায় এবার প্রধানমন্ত্রীর কোনো আত্মীয় স্থান পাননি।

এবারের নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রীর ১২ জন আত্মীয় আওয়ামী লীগ থেকে জয়লাভ করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

বিগত মন্ত্রিসভাতেও প্রধানমন্ত্রীর বেয়াই মোশাররফ হোসেন মন্ত্রিসভায় ছিলেন। প্রথম দফায় তিনি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। দ্বিতীয় মেয়াদে তাকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এবার মন্ত্রিসভায় তার স্থান হয়নি।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে গোপালগঞ্জ-২ থেকে জয় পেয়েছেন শেখ ফজলুল করিম সেলিম। তিনি সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীল ফুপাত ভাই। শেখ সেলিমের মা আছিয়া বেগম বঙ্গবন্ধুর বোন ও শেখ হাসিনার ফুপু।

তৃতীয় বারের মতো মন্ত্রিত্ব বঞ্চিত হলেন শেখ সেলিম। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগের প্রথম মেয়াদে তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

খুলনা-২ আসনে জয় পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর চাচাত ভাই শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল। জুয়েলের পিতা শেখ নাসের উদ্দিন হলেন বঙ্গবন্ধুর আপন ছোট ভাই।

বাগেরহাট-১ থেকে জয় পেয়েছেন বঙ্গবন্ধুর ভাতিজা শেখ হেলাল উদ্দিন। তিনিও শেখ নাসেরের ছেলে। বাগেরহাট-২ আসন থেকে জয় পেয়েছেন শেখ তন্ময়। তিনি শেখ হেলাল উদ্দিনের ছেলে এবং শেখ হাসিনার ভাতিজা। তার কেউই মন্ত্রিসভায় স্থান পাননি।

এ ছাড়া বরিশাল-১ আসনে জয় পেয়েছেন আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ। তিনি বঙ্গবন্ধু সরকারের সাবেক মন্ত্রী আবদুর রব সেরনিয়াবাতের ছেলে এবং শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই। ঢাকা-১০ থেকে জয় পেয়েছেন শেখ ফজলে নূর তাপস। বঙ্গবন্ধুর বোন আছিয়া বেগমের ছেলে শেখ ফজলুল হক মনি হলেন তার পিতা। সেই সম্পর্কে শেখ হাসিনা তার ফুপু। মাদারীপুর-১ আসন থেকে জিতেছেন নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন। তার পিতা মাদারীপুরের সাবেক এমপি ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী এবং শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই। কুষ্টিয়া-৩ আসনে জয় পেয়েছেন মাহাবুব-উল আলম হানিফ। তিনি শেখ হাসিনার ফুপাতো বোনের দেবর। রাজশাহী-১ আসনে জয় পেয়েছেন যুবলীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী। তিনি শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই, আবার শেখ মনি ও শেখ সেলিমের বোন জামাই। সিরাজগঞ্জ-২ আসনে জয় পেয়েছেন মো. হাবিব মিল্লাত। তিনি শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের ননদের স্বামী। গাইবান্ধা- ২ আসনে জয় পেয়েছেন মাহাবুব আরা বেগম গিনি। তিনি শেখ হাসিনার প্রয়াত স্বামী ওয়াজেদ মিয়ার বড় বোনের নাতনী। তাদের কেউই এবার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী হননি।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।