সর্বশেষ শিরোনাম
মাতামুহুরী নদীর নতুন সেতু নির্মানে অধিগ্রহণে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের সামনে হামলার ঘটনায় মামলাচকরিয়া আল ইয়ামিন মডেল মাদরাসার অনুষ্ঠানে ফজলুল করিম সাঈদীচকরিয়ায় আমেরিকান প্রবাসী পরিবারের বিরুদ্ধে নিরীহ পরিবারের বসতভীটা জবর দখল চেষ্টা ও গাছ কেটে লুটের অভিযোগশ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৯০চকরিয়ায় বাস-ট্রাক ত্রিমূখি দূর্ঘটনায় মোটর আরোহী এনজিও কর্মী নিহতপূর্ববড় ভেওলায় খলিল চৌং ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ফাইনালে চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদীচকরিয়ায় প্রবাসীর স্ত্রী ও মাকে বসতঘরে জিম্মিকরে চাঁদা দাবী : ভাংচুর ও প্রাণনাশের হুমকিচকরিয়ায় চারুকলা গবেষণা কেন্দ্রের নতুন জেলা কমিটির অভিষেক ও শপথ অনুষ্ঠান সম্পন্নশ্যালিকাকে বখাটের ঢিল, প্রতিবাদ করায় হামলাচকরিয়া পৌর সদরে মাহে রমজান উপলক্ষে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

কালারমারছড়ায় এস পি এম প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগের বিষয় নিষ্পত্তি করতে সমন্বয়ক করলেন তারেক চেয়ারম্যানকে

[post-views]

49948058_441020689768228_3927129816981045248_n

আল্ জাবের উপকূলীয় প্রতিনিধি ঃ

কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়ায় এস পি এম প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগের বিষয় নিষ্পত্তি ও জনসাধারণের কাছে জবাবদিহি মূলক ভাবে পরিষ্কার করার জন্য জেলা প্রশাসন ও ক্ষতিগ্রস্থদের যৌথ এক বৈঠক ১১ ফেব্রুয়ারী সোমবার সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসকের হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আশরাফুল আবছার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা রেজাউল করিম। সিনিয়র সাংবাদিক এডভোকেট তোফাইল আহমদ, মহেশখালী সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাছান মারুফ ও কালারমারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জমির মালিক, ক্ষতিগ্রস্থ পান চাষী ও অভিযুক্তরা। অনুষ্ঠিত বৈঠকে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা রেজাউল করিম খন্ড খন্ড করে বিষদ আকারে সকলের সামনে বলেন যে ভালভাবে না বুঝে যাচাই-বাচাই না করে না শুনে অহেতুক ভুল বুঝে ২২ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করা সত্য নয়। এ ধরণের কোন অনিয়ম হয় নাই। যে ১২ জনের বিরুদ্ধে ২২ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে অভিযুক্ত করেছেন তাদেরকে মাত্র দেয়া হয়েছে ৯৪ লাখ টাকা। এছাড়া দেয়া হয়েছে ২০ ধারা নোটিশ। ২০ ধারা নোটিশ মানে জমি হুকুম দখল করা, জমির উপর অস্থাবর সম্পদ সরিয়ে ফেলতে ২০ ধারা নোটিশ দেয়া হয়। এতে যারা অস্থাবর সম্পতি সরিয়ে নিয়েছেন তাদেরকে স্থাপনা বা সম্পদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে। যাদের জমিনে স্থাপনা নেই তারা ঐ সব জমিনের মালিক স্থাপনার ক্ষতিপূরণের আওতায় আসবে না। স্থাপনা কিংবা পান বরজ ক্ষতিগ্রস্থ হলে তা সরজমিনে তদন্ত করে জমিনের মালিক এবং স্থাপনা নির্মাণকারীদের সাথে বসে তা সমাধান করা হবে। এতে উপস্থিত জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা সহ সকলের মতামতের ভিত্তিতে বিরোধপূর্ণ সমস্যা স্থানীয়ভাবে সমাধান করতে চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফকে সমন্বয় করতে বলা হয়। এ সিদ্ধান্তের পর উপস্থিত প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা, ক্ষতিগ্রস্থ ও অভিযুক্তরা মনে করেন এখন তারেক চেয়ারম্যান একটি সঠিক সমাধান দিতে পারবেন। এ প্রসংঙ্গে তারেক চেয়ারম্যান বলেন আমার ইউনিয়নের যে সমস্ত পান চাষী সহ যারা ক্ষতিগ্রস্থ হবে তাদেরকে ক্ষতিপূরণ সহ পূনঃবাসন করতে আমার যথেষ্ট আন্তরিক ও সহযোগিতা থাকবে।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।