সর্বশেষ শিরোনাম
কক্সবাজার এলও শাখায় ৫ দালাল আটক ও কয়েকজন পলাতকনোটারী মূলে ও কলেমা পড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ, নোটারী ও রেজিষ্ট্রি মূলে কামাল-কাসফিয়া’র বিয়েআল-রাজি চক্ষু হাসপাতালচকরিয়া হাফেজ রুহুল আমিন হত্যায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবীতে মানববন্ধনবদরখালী ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের তথা কথিত কমিটি প্রত্যাখান করে কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি গঠনের দাবীচকরিয়ার বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানচকরিয়ার বদরখালীতে এক ইয়াবা ব্যবসায়ীর অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকাবাসীচকরিয়ার বরইতলীতে চৌকিদার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ, ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা এমপি’রচকরিয়ায় মেসার্স আকিফ পর্দা বিতান ও নিউ চকরিয়া আনোয়ার বেডিং ষ্টোর শোরুম উদ্বোধনব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত চকরিয়া পৌরসভার স্টাফ রকিব হাসানকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

টেকনাফের ইয়াবা পল্লীতে পুলিশের সাঁড়াশী অভিযান, আটক ১

[post-views]

teknaf-pic-2-6-2018-2-650x406 (1)

টেকনাফে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীদের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ সদস্যরা। মাদক ব্যবসায়ীরা তাদের ঘরে অবস্থান করার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শনিবার ২ জুন টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মৌলভীপাড়ায় বিকাল ৩টা থেকে ভারপ্রাপ্ত ককর্মকর্তা রনজিত কুমার বড়ুয়ার নেতৃত্বে পরিদর্শক (তদন্ত) আতিক, এসআই মাহির উদ্দিন খাঁন, বিবেকনান্দ, সাইদুল ইসলাম, তাপস ও সাইফুল ইসলামসহ ৫০ সদস্যের পুলিশ দল ইয়াবা ব্যবসায়ীদের বাড়িতে এ অভিযান চালানো হয়।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া বলেন, ‘টেকনাফ সদরের মৌলভীপাড়াএলাকার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রালয়ের তালিকাভূক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী একরাম, আবদুর রহমান, মোহাম্মদ আলী, আবুল কালাম প্রকাল কালা ও জাফর আলমের বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ। তবে মাদক ব্যবসায়ীরা বাড়িতে না থাকায় তাদের কাউকেই আটক করা যায়নি। ইয়াবা ব্যবসায়ীদের বাড়িগুলো দেখতে অনেকটা ‘রাজপ্রাসাদ’-এর মতো। এসব বাড়িতে অভিযান চালানো হয়েছে। কোনও মাদক ব্যবসায়ীকেই ছাড় দেওয়া হবে না। যতক্ষণ পর্যন্ত ইয়াবা বন্ধ না হবে, ততক্ষণ এ অভিযান চলবে। এসময় রাসেল নামে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। মাদকবিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা দুবাই, মালয়েশিয়া, ভারত ও ওমরা পালনের নামে সৌদি আরবে পালিয়ে গেছে। অনেকে ট্রলারযোগে সমুদ্রপথে মিয়ানমারে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। আবার কেউ কেউ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পেতে রোহিঙ্গা শিবিরে আশ্রয় নিচ্ছে বলে শোনা গেছে।

বিভাগের সংবাদ।

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ: