সর্বশেষ শিরোনাম
১কেজি ধান বিক্রি করে কৃষক পায় ১২/১৩ টাকা!চকরিয়ায় ফেসবুকে সম্মানহানির স্ট্যাটাসসংবাদ সম্মেলনে ভূক্তভোগীর প্রতিকার দাবীচকরিয়ায় লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়েবিদ্যুত কার্যালয়ে মুসল্লীদের হামলাচকরিয়া ছাত্র কল্যাণ ফোরামের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিতচট্টগ্রামস্থ চকরিয়া সমিতিরইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিতচকরিয়া মডেল ফারিয়া’র ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্নখুটাখালী ইউনিয়ন জামায়াতের ইফতার মাহফিল চকরিয়ার চিরিংগা বাস ষ্টেশন মসজিদে দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে আয়-ব্যয়ের হিসাব নেই,মুসল্লীদের ক্ষোভদায়িত্ব পালনে চকরিয়ার সকল মসজিদ-মাদরাসারউন্নয়ন ও আলেম সমাজের মর্যাদা রক্ষায় কাজ করবো- সাঈদীচকরিয়ায় মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ফারুক আহমদ চৌধুরীর ৫ম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

মাতামুহুরী নদীর নতুন সেতু নির্মানে অধিগ্রহণে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের সামনে হামলার ঘটনায় মামলা

[post-views]

chakaria pic 16-4-19 (3)

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ার মাতামুহুরী নদীর চিরিঙ্গা পয়েন্টে নতুন সেতু নির্মাণের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের এলএ শাখার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের উপস্থিতিতে জমির কাগজপত্র ও দখলদার যাছাই-বাছাই এবং পরিদর্শনকালে এক পক্ষের পরিকল্পিত হামলার ঘটনায় একই পরিবারের ৯জন আহত হয়। গত ১৬ এপ্রিল দুপুরে সড়ক ও জনপথ বিভাগের অফিসের সামনে ঘটে এ ঘটনা। এনিয়ে হামলার শিকার জমি মালিক পক্ষের মরহুম মাওলানা শাহসুপী আহমদ হোসেন মিয়াজীর পুত্র আবদুল মন্নান বাদী হয়ে ২জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ১৩/১৪জন দেখিয়ে চকরিয়া থানায় মামলা (নং ৩২,জিআর ১৭৩/১৯) দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত আসামীরা হলেন চকরিয়া পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ডের চিরিংগা বাসষ্টেশন পাড়া এলাকার মরহুম সোলতান আহমদ (সোলতান আমিন) এর পুত্র উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য সহকারী আবু তালেব ও তার ভাই আজিজুল হক লিটন।
স্থানীয় সুত্রে অভিযোগ উঠেছে, কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ভুমি শাখার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জমি অধিগ্রহনের বিপরীতে ক্ষতিপুরণের টাকা বিতরণে জমির প্রকৃত মালিক নির্ণয়ে জমি মালিক ও দখলদারদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে গত ১৬ এপ্রিল সার্ভেয়ার সহকারে সরে জমিনে তদন্তে আসেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ম্যাজিষ্ট্রেট ও ভুমি অধিগ্রহন কর্মকর্তা আবু হাসনাত মো.শহিদুল হক। ওই সময় তিনি চকরিয়া উপজেলা সদরে মাতামুহুরী নদীর চিরিঙ্গা সেতু পয়েন্টে অধিগ্রহনের আওতায় পড়া জমি পরির্দশন ও ভুক্তভোগী জমি মালিকদের অভিযোগ শুনেন। পরির্দশনের একপর্যায়ে চকরিয়া সড়ক বিভাগের অফিনের সামনে ক্ষতিপুরণের টাকা দাবি নিয়ে কথা বললে উল্লেখিত আসামীরা ম্যাজিষ্ট্রেটের সামনেই বাদী পক্ষের উপর হামলা চালায়। হামলায় আহত হয়েছেন মরহুম মাওলানা শাহসুপী আহমদ হোসেন মিয়াজী মেয়ে রহিমা খাতুন (৫১), মুর্শিদা খাতুন (৪৫), মাহমুদা খাতুন (৪০), জান্নাত আরা (৩৮), মাওলানা মোহাম্মদ আলী (৫৮), আবদুল মন্নান (৫২), আবদুল হামিদ (৫০), মহিউদ্দিন কন্ট্রাক্টর (৪৭), মৃত রহমত উল্লাহর স্ত্রী সেতারা বেগম (৪২)। স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। হামলার সময় স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকাসহ ১লাখ ৬২ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।
বিষয়টি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে তদন্তে উপস্থিত কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ম্যাজিষ্ট্রেট ও ভুমি অধিগ্রহন কর্মকর্তা আবু হাসনাত মো.শহিদুল হক বলেন, জমি অধিগ্রহন ও ক্ষতিপুরণের টাকা বিতরণের ক্ষেত্রে কোন ধরণের অনিয়ম হবেনা। কিছু কিছু ভুমি মালিক ক্ষতিপুরণের টাকা প্রাপ্তি নিয়ে অভিযোগ করায় সরেজমিন বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তিনি বলেন, বৈধ কাগজপত্র অর্থাৎ খতিয়ানমুলে যিনি জমির মালিক তিনিই ক্ষতিপুরণের টাকা পাবেন।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছেন, হামলার ঘটনায় হাজী আবদুল মন্নান বাদী হয়ে লিখিত এজাহার দেওয়ার পর তদন্ত করে তা মামলা হিসেবে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। বর্তমানে মামলাটি পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ ও তদন্তের জন্য থানার উপপরিদর্শক কামরুল হাসানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।