সর্বশেষ শিরোনাম
১কেজি ধান বিক্রি করে কৃষক পায় ১২/১৩ টাকা!চকরিয়ায় ফেসবুকে সম্মানহানির স্ট্যাটাসসংবাদ সম্মেলনে ভূক্তভোগীর প্রতিকার দাবীচকরিয়ায় লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়েবিদ্যুত কার্যালয়ে মুসল্লীদের হামলাচকরিয়া ছাত্র কল্যাণ ফোরামের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিতচট্টগ্রামস্থ চকরিয়া সমিতিরইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিতচকরিয়া মডেল ফারিয়া’র ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্নখুটাখালী ইউনিয়ন জামায়াতের ইফতার মাহফিল চকরিয়ার চিরিংগা বাস ষ্টেশন মসজিদে দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে আয়-ব্যয়ের হিসাব নেই,মুসল্লীদের ক্ষোভদায়িত্ব পালনে চকরিয়ার সকল মসজিদ-মাদরাসারউন্নয়ন ও আলেম সমাজের মর্যাদা রক্ষায় কাজ করবো- সাঈদীচকরিয়ায় মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ফারুক আহমদ চৌধুরীর ৫ম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

জেলা প্রশাসকের সাথে শুভেচ্ছাকালে চকরিয়ার উন্নয়ন নিশ্চিতে সহযোগিতা চাইলেন উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদী

[post-views]

Chakaria Picture 11-05-2019

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়া উপজেলা পরিষদ মেধাবৃত্তি পরীক্ষার পুরুস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে যোগদান করতে শুক্রবার সরকারি বন্ধের দিনেও চকরিয়া উপজেলা পরিষদে এসেছিলেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো.কামাল হোসেন। তিনি এদিন উপজেলা পরিষদের মোহনা মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত থেকে উপজেলার ২৭ হাজার কোমলমতি শিক্ষার্থীর মাঝে মিড ডে মিল কর্মসুচির আওতায় টিফিনবক্স ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ উদ্ভোধন করেছেন।
চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমানের সভাপতিত্বে অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- চকরিয়া-পেকুয়া (কক্সবাজার-১) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম।
অনুষ্ঠানে অংশনেয়ার আগে জেলা প্রশাসক মো.কামাল হোসেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদে এসে পৌঁছালে সেখানে আগে থেকে অপেক্ষামান চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এবং চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী ফুলেল সংবর্ধনায় বরণ করে নেন জেলা প্রশাসককে। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো.আমিন আল পারভেজ, চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) খোন্দকার মোহাম্মদ ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত, চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) এসএম আতিক উল্লাহ প্রমুখ।
এরপর উপজেলা পরিষদের সম্মেলনকক্ষে চকরিয়া উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মো.আনোয়ারুল কাদের এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন এমপি জাফর আলম। উদ্বোধকের বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক মো.কামাল হোসেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো.আমিন আল পারভেজ।
বিশেষ অতিথির আরো বক্তব্য রাখেন চকরিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ একেএম গিয়াস উদ্দিন, চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক মো.নুরুল আখের, চকরিয়া মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তছলিম উদ্দিন, কাহারিয়াঘোনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেলিনা আক্তার প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে এসময় উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) খোন্দকার মোহাম্মদ ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক চুট্টু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসি চৌধুরী জেসি, চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) এসএম আতিক উল্লাহ, চকরিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা গুলশান আক্তার, মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাহারবিলের চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, চকরিয়া কেন্দ্রীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহামুদুল হক প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষন করে চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী বলেন, আমাদের চকরিয়া উপজেলা ১৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এলাকা নিয়ে গঠিত। এই জনপদে প্রচুর অর্থনৈতিক সম্ভাবনা বিদ্যমান। তবে সমস্যার পাহাড় অনেক। এসব সমস্যা থেকে উত্তোরণের মাধ্যমে সাড়ে ৬লাখ জনগনের বাসযোগ্য জনপদ চকরিয়া উপজেলাকে সাজাতে চাই। সেইজন্য আপনার সার্বিক সহযোগিতা চাই।
তিনি বলেন, চকরিয়া-পেকুয়ার মাটি মানুষের অভিভাবক সংসদ সদস্য আলহাজ জাফর আলম জনগনের সঙ্গে আছেন। তিনি এলাকার উন্নয়নে নিরলশভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আশাকরি চকরিয়াবাসির কল্যাণে এমপি জাফর আলমের মতো আপনিও ( জেলা প্রশাসক মহোদয়) আমাদের অগ্রযাত্রায় সারথী হবেন। এই প্রত্যাশা রাখছি।
অনুষ্ঠানে উদ্বোধকের বক্তব্যে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো.কামাল হোসেন চকরিয়া উপজেলার সার্বিক উন্নয়নে তাঁরপক্ষ থেকে সব ধরণের আশ^াস দেন। একই সঙ্গে এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মধ্যে সমন্বয় সম্প্রীতি থাকলে সব ধরণের উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করা সম্ভব বলে সবাইকে স্বরণ করে দেন।
জেলা প্রশাসক আরও বলেন, আমরা সবাই নিরক্ষতার অভিশাপমুক্ত ক´বাজার বির্নিমান করতে চাই। সেইজন্য শিক্ষায় পিছিয়ে কক্সবাজারকে এগিয়ে নিতে যার যার অবস্থান থেকে সবাইকে কাজ করতে হবে। এই অগ্রযাত্রায় আমাদের মাঝে নতুন প্রেরণা চকরিয়া উপজেলা পরিষদ মেধাবৃত্তি। এ ধরণের কর্মসুচি সরকার প্রধানের ভিশন বাস্তবায়নের পথে অন্তরায় হবে। নতুন প্রজন্মের জন্য এই ধরণের প্রতিযোগিতা অব্যাহত রাখতে হবে। মেধাবী মানবসম্পদ তৈরী করতে শিক্ষামুলক প্রতিযোগিতা আরো বাড়ানো উচিত।
জেলা প্রশাসক বলেন, দক্ষ মানবসম্পদ তৈরীতে বাংলা বিজ্ঞানের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদেরকে ইংরেজীতে পারদর্শী করে তুলতে হবে। মনে রাখতে হবে, দক্ষতা থাকলে নতুন প্রজন্ম হবে আগামী দিনের সম্পদ, দেশগড়ার কারিগর। সেইজন্য শিক্ষকমন্ডলীকে আরো বেশি দায়িত্বশীল ভুমিকা পালন করতে হবে। শিক্ষকরা হলেন জাতি গঠনের কারিগর। তাই শিক্ষকরা অর্পিত দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে কর্মদক্ষতা উপহার দিয়ে সুন্দর সমাজ ও মেধাবী মানবসম্পদ গড়তে সফল হবেন।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।