সর্বশেষ শিরোনাম
চাকমারকুল মাদরাসার মুহতামিমসহ ৫ শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় ক্ষোভ-নিন্দাশেখ হাসিনার সরকার চকরিয়া-পেকুয়ার বন্যাদুর্গত জনপদে ক্ষয়ক্ষতি লাগবে উদ্যোগ নেবে-এমপি জাফর আলমচকরিয়া প্রেসক্লাব সভাপতি স্থায়ী জামিন পাওয়ায় ফুলেল ভালবাসায় সিক্তসাহারবিল আনওয়ারুল উলুম কামিল মাদরাসায় আলিমে ৯৬% পাশবদরখালী আজমনগর বিদ্যালয়ের সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগচকরিয়ায় বন্যা দূর্গতদের মাঝে ৩য় দফায় আছিয়া-কাশেম ট্রাস্টের ত্রাণ ও খাবার বিতরণফাঁসিয়াখালী ইউপি’র উপ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী সাংবাদিক শাহেদের সংবাদ সম্মেলনচকরিয়ায় পরোয়ানাভূক্ত সাবেক কাউন্সিল নুর হোসেন ও ১৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত যুবলীগ নেতা মঈনুদ্দিন গ্রেফতারহিন্দু ধর্ম থেকে পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে সনজিত দাশ এখন মোঃ ইব্রাহিমচকরিয়া প্রেসক্লাব সভাপতি’র নিম্ন আদালতে স্থায়ী জামিন লাভ

চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মচারী নাজেমের অপসারণ ও শাস্তি চেয়ে মানববন্ধন

[post-views]

CHAKARIA HASPATAL 11-5-19

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিকল্পিতভাবে গত ১০ মে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। হামলাকালে জরুরী বিভাগে ডিউটিরত মেডিকেল অফিসারকে লাঞ্ছিত করে চেয়ার ছুড়ে মারা, ইফতারের সময় হাসপাতাল মসজিদে জুতা পায়ে ঢুকে ইফতার সামগ্রী ছুড়ে দেয়া এবং আমির হোসেন নামে একজনকে মারধরের পর অপহরণের চেষ্টা চালানো হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয় বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী ও ভূক্তভোগীরা ১১ মে বিকাল ৩টায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চিরিংগা সোসাইটি এলাকায় বিশাল মানববন্ধন করেছে। মানবন্ধনকালে হাসপাতালের ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী নাজেম উদ্দিনের নেতৃত্বে হামলার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী হামলায় চকরিয়া পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের মাস্টার পাড়া এলাকার আলহাজ্ব ইসলাম আহমদ প্রকাশ ইউসুফ আলীর পুত্র মোহাম্মদ আমির হোসেন গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।
মানববন্ধনে আহত আমির হোসেন জানান, ১০ মে সকাল ১১টায় হাসপাতালের পাকঘরে রান্না-বান্নায় সহযোগিতা করতে যান তিনি (আমির হোসেন)। এসময় আকর্ষ্মিকভাবে ঢুকে তাকে মারধর করেন কর্মচারী নাজেম উদ্দিন। তাকে গুরুতর আহত করার বিষয়ে জরুরী বিভাগে ভর্তি করায় উত্তেজিত হয়ে দুপুর ২টায় ডিউটিরত এমবিবিএস ডাঃ সামজিদা বেনজীরকে নাজেহাল করে এবং ডাক্তারের চেয়ার বাহিরে ছুড়ে ফেলে। ফলে দুপুর ২ টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত ২ঘন্টা ব্যাপী জরুরী বিভাগে চিকিৎসা সেবা বন্ধ থাকে। এতে বিপাকে পড়ে হাসপাতালের আগত রোগীরা। ওই সময় কর্মরত ছিলেন মেডিকেল সহকারী নাজেম উদ্দিন। হামলার শিকার আমির হোসেন হাসপাতাল মসজিদে ইফতার করার সময় নাজেম উদ্দিন, তার অপরাপর ভাই ও ভাড়াটিয়াদের নিয়ে জুতা পায়ে মসজিদে ঢুকে ফের মারধর করে ও ইফতারি সামগ্রী ছিটিয়ে দেয়। এমনকি নাজেম উদ্দিন ও তার সহযোগী ৫/৬জন লোক পুলিশ পরিচয়ে আমির হোসেনকে অপহরণের চেষ্টাও চালায়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে চকরিয়া থানা পুলিশ পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।
এদিকে হাসপাতালের ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী নাজেম উদ্দিনের অপসারণ ও শাস্তির দাবীতে হাসপাতালের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন ও মহাসড়কে বিশাল মানববন্ধন করেছে স্থানীয় লোকজন ও ভূক্তভোগীরা। এসময় বক্তব্য রাখেন ৮নং ওয়ার্ডের সমাজসেবক আহমদ রেজা, স্থানীয় বাসিন্দা মহিউদ্দিন,শফিউল আলম, নাজেম উদ্দিন, সাবেক যুবলীগ নেতা জামাল উদ্দিন, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি কাইছার হামিদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহসভাপতি সাদ্দাম হোসেন রুবেল, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা পারভেজ, চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের সহ সম্পাদক জয়নাল হাজারীসহ স্থানীয় লোকজন। এদিকে তবে নাজেম উদ্দিন জানিয়েছেন, বহিরাগত কিছু লোকজন নিয়ে তার উপরও হামলা চালানো হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান জানান, ঘটনার বিষয়ে অবগত হওয়ার পর তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডা: মোহাম্মদ শাহভাজ জানান, ঘটনাটি অত্যন্ত দু:খজনক। এবিষয়ে মাননীয় সাংসদকে অবহিত করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হবে

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।