চকরিয়ায় অপরাধ দমনে জমজম থেকে টার্মিনাল পর্যন্ত আজ স্থাপিত হচ্ছে ১০০ সি.সি ক্যামরা

[post-views]

23472407_100358310741537_8980596579295683203_n

আবদুল মজিদ,চকরিয়া:
চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় পৌর সদরের জমজম হাসপাতাল (মাতামুহুরী ব্রীজ) হতে শহীদ আবদুল হামিদ পৌর বাস টার্মিনাল পর্যন্ত ১০০টি সি.সি ক্যামরা বসানো হচ্ছে। আজ ২৯ মে সকাল থেকে এর কার্যক্রম শুরু হবে। এসব সি.সি ক্যামরা মনিটরিং করা হবে সরাসরি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানার অফিসার ইনচার্জ এর কার্যালয় হতে। ফলে পৌর সদরে অপরাধ প্রবণতা, সহিংসতা, ইভটিজিং, ছিনতাই, খুন-খারাবিসহ ইত্যাদি অপরাধ নিয়ন্ত্রণসহ কমে আসবে। প্রশাসনের এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সচেতন মহল।
সচেতন মহল এ প্রতিবেদককে জানান, পৌর সদরে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ মূলক যথাযথ এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে সি.সি ক্যামরা না থাকার কারণে প্রকাশ্যে হত্যা,ছিনতাই,ইভটিজিংসহ নানা অপরাধ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এমনকি ভূক্তভোগীরা সুষ্ঠু কোন বিচারও পায়না। এখন সি.সি ক্যামরা বসনোর ফলে অপরাধ সংঘঠিতকারীদের আইনের আওতায় আনতে প্রশাসন সচেষ্ট হবে বলে মনে করছি। বিশেষ করে চলমান ঈদ বাজারকে সামনে রেখে উক্ত সি.সি ক্যামরা যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে।
চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, সিসি ক্যামরা স্থাপনে উপজেলা আইনশৃংখলা কমিটির সভায় ইতিপূর্বে একাধিকবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। এজন্য পৌর সদরের ব্যবসায়ীদের একাধিকবার তাগাদাও দেয়া হয়েছিল। কিন্তু কোন উদ্যোগ না নেওয়ায় উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসন জরুরী ভিত্তিতে সি.সি ক্যামরা স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে। তিনি বলেন, সম্প্রতি পৌর সদরের বাণিজ্যিক মার্কেটে ছাত্রলীগ নেতা মেধাবী ছাত্র আনাছ ইব্রাহিমকে ক্ষুর মেরে হত্যার বিষয়টি প্রশাসনের দৃষ্টি কেড়েছে। এভাবে জানা-অজানা অনেক অপরাধ সংঘঠিত হচ্ছে। এখন সি.সি ক্যামরা স্থাপনের ফলে এসব অপরাধ দমনে প্রশাসন সচেষ্ট হবে। তিনি আজ ২৯ মে সকাল থেকে এর কার্যক্রম শুরু হবে বলে ঘোষণা দেন। এসব সি.সি ক্যামরা সরাসরি উপজেলা প্রশাসন ও থানা থেকে নিয়ন্ত্রন করা হবে।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।