মাতামুহুরী নদীতে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র নিখোঁজের চারঘন্টা পর মৃতদেহ উদ্ধার

chakaria (bishal) 9-10-19

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীতে সাঁতার কেটে এপার থেকে ওপারে উঠতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে পড়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী। তাকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসে কর্মী এবং স্থানীয় জেলেরা কয়েকঘন্টা ধরে নদীতে তল্লাশী চালালেও তার হদিস পাচ্ছিল না। এই অবস্থায় ডুবুরীদল আসতে না পারায় শেষ পর্যন্ত ফের নদীতে জেলেরা জাল ফেলে তল্লাশী চালালে নিখোঁজের প্রায় ৬ ঘন্টা পর শিক্ষার্থীর লাশটি জেলেদের জালে ধরা পড়ে। এর পর লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
এর আগে কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম ডুবুরীদল চট্টগ্রাম থেকে আসতে দেরী হওয়ার খবর পেয়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে জেলেদের ডেকে জাল ফেলে লাশটি উদ্ধারের ব্যবস্থা করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, পৌরমেয়র আলমগীর চৌধুরী, ইউএনও নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান, ওসি মো. হাবিবুর রহমান প্রমূখ।
নদীতে নিখোঁজ হয়ে মারা যাওয়া শিক্ষার্থীর নাম আওরঙ্গজেব বিশাল (১৪)। সে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) ও আওয়ামীলীগ নেতা আলমগীর কবির রাজুর ছেলে এবং চকরিয়া ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে তিন বন্ধু মিলে চিরিঙ্গাস্থ মাতামুহুরী নদীর পূর্বপাড় থেকে পশ্চিমপাড়ে আসতে নদীতে নেমে সাঁতার কাটে। কিন্তু দুইজন মাঝপথ থেকে ফের পূর্বাংশে চলে গেলেও আওরঙ্গজেব বিশাল নদীতে তলিয়ে যায়। এর পর থেকে নিখোঁজ হয়ে পড়লে তাকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের কর্মী এবং স্থানীয় জেলেরা জাল ফেলে তল্লাশী চালায়। কিন্তু কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না নিখোঁজ শিক্ষার্থীর। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, ‘সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে লাশটি একইস্থান থেকে উদ্ধারের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।