নোটারী মূলে ও কলেমা পড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ, নোটারী ও রেজিষ্ট্রি মূলে কামাল-কাসফিয়া’র বিয়ে

kamal-kasfia, chakaria 14-10-2019

আমি লাভলী সুশীল, পিতা সাধন সুশীল, মাতা- চিনু সুশীল, সাং-কুমারের বাড়ি, চিরিংগা হিন্দুপাড়া, ডাকঘর-চিরিংগা, চকরিয়া পৌলসভা,কক্সবাজার, জন্স তারিখ ৩০/১০/১৯৯৩ইং, ধর্ম-হিন্দু পেশা গৃহীনি, জাতীয়তা বাংলাদেশী। আমি বিজ্ঞ চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট/নোটারী পাবলিক কার্যালয়,চট্টগ্রাম আদালতে সরাসরি উপস্থিত হয়ে গত ১৩/১০/২০১৯ইং তারিখ নোটারী নং ৪৯৭৪/১৯ লিপি পূর্বক পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি। আমি হলফনামাকারী একজন সাবালিকা হিসেবে আমার জীবনের ভাল মন্দ বিচার বিশ্লেষন করার পূর্ণ জ্ঞান ও অধিকার আছে। আমি পবিত্র ইসলাম ধর্মের বই পুস্তক পড়িয়া, ওয়াজ মাহফিল ও ইসলাম ধর্মের বক্তব্য শুনিয়া এবং ইসলাম ধর্মের রাজনীতি, আচার ও জীবন ব্যবস্থা ইত্যাদির প্রতি মুগ্ধ ও আকৃষ্ঠ হইয়া আমার পূর্ব ধর্ম হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করিয়া ইসলাম ধর্ম গ্রহণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি এবং সেই মতে ১৩অক্টোবর’১৯ইং সকাল ১০ঘটিকায় একজন ধর্মীয় আলেমের (হুজুর) মাধ্যমে পবিত্র জায়গায় কলিমা “লা ইলাহা ইল্লালাহু মুহাম্মদুর রাসুল্লাহ (সা:) পড়িয়া “এক আল্লাহর” উপর পূর্ণ বিশ্বাস করিয়া পবিত্র ইসলাম ধর্মের বিধি বিধানের উপর আস্থা স্থাপন করিয়া আমার প্রাক্তন হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করিয়া পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করিলাম। আমার পূর্বের নাম “লালী সুশীল” পরিবর্তন করিয়া ইসলামী নাম “কাসফিয়া সুলতানা (মুন)” গ্রহণ করিলাম। ইতি- কাসফিয়া সুলতানা (মুন)।
এদিকে একই দিন বিজ্ঞ সিনিয়র/সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট/নোটারী পাবলিকের কার্যালয়,সদর, চট্টগ্রাম আদালতে মো: কামাল উদ্দিন ও কাসফিয়া সুলতানা (মুন) এর “বিবাহের যৌথ হলফনামা” (নং ৪৯৭৩/১৯, তাং ১৩/১০/২০১৯ইং) সম্পাদন করিয়াছেন। হলফনামায় উল্লেখ রহিয়াছে; আমি কামাল উদ্দিন পিতা মো: কালু, মাতা হাসান বানু, সাং ভরামুহুরী, মসজিদ পাড়া, ৪নং ওয়ার্ড, চকরিয়া পৌরসভা,কক্সবাজার, জন্ম তারিখ ১০/০৫/১৯৮৮ইং, ধর্ম-ইসলাম, জাতীয়তা-বাংলাদেশী,
এবং আমি কাসফিয়া সুলতানা (মুন) , পিতা সাধন সুশীল, মাতা- চিনু সুশীল, সাং-কুমারের বাড়ি, চিরিংগা হিন্দুপাড়া, ডাকঘর-চিরিংগা, চকরিয়া পৌলসভা,কক্সবাজার, জন্স তারিখ ৩০/১০/১৯৯৩ইং, ধর্ম-ইসলাম, পেশা গৃহীনি, জাতীয়তা বাংলাদেশী। আমরা উভয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক ও বয়ষ্কা যুবক-যুবতী হই। আমরা আমাদের জীবনের প্রকৃত ভাল-মন্দ উপলব্ধি করার অধিকারী এবং নিজ সম্পূর্কে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিতে সক্ষম। আমরা হলফনামাকারী একে অপরের সহীত পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে এবং ভালবাসায় আবদ্ধ হয়ে একে অপরের আচার-ব্যবহার ও রূপে-গুনে মুগ্ধ হইয়া একে অপরকে আন্তরিকভাবে ভালবাসিয়া আসিতেছি। আমাদের উক্ত ভালবাসার প্রেক্ষিতে অদ্য হইতে ইসলামী শরীয়তের বিধান মতে ৫,০০,০০০/- (পাঁচ লক্ষ) টাকা দেনমোহর এবং তৎ মধ্যে ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকা উসূল ধার্য্যে, মাসিক যুগোপযোগি খোরাকী ধার্য্য করতঃ কাজী সাহেবের মাধ্যমে স্বাক্ষীগনের সম্মূখে রেজিষ্ট্রি করিয়া একে অপরের সহিত বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হইয়া একে অপরকে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বরণ করিয়া নিয়াছি। অদ্য হইতে সংসার জীবনে আমরা একে-অপরকে স্বামী-স্ত্রীর মর্যাদা প্রদান করিয়া ধর্মীয় রীতিনীতি অনুসরণ করিয়া সুখে শান্তিতে বসবাস করিব। আমাদের দু’জনের বিবাহ-সর্ম্পকের মধ্যে কাহারো কোন ধরণের ওজর-আপত্তি ছিলনা। আমরা সুস্থ মস্তিস্কে-সুস্থ শরীরে কাহারো বিনা পরোচনায় অত্র হলফনামা সম্পাদন করিলাম। আমাদের দাম্পত্ত্য জীবন সুখী হতে আত্বীয়-স্বজন,বন্ধু-বান্ধবসহ সকলের কাছে দোয়া কামনা করছি। ইতি- মো: কামাল উদ্দিন ও কাসফিয়া সুলতানা (মুন)।

বিভাগের সংবাদ।

নিউজ ডেস্ক, চকরিয়া২৪।